আসামের গৌরব আদিল হুসেইন

প্ৰতিভার জগতে অনেক ব্যক্তি রয়েছেন যারা নিজেদের প্রতিভা দিয়ে নিজেদের উপযুক্ত স্থান নিয়েছেন । প্রত্যেকজন প্রতিভাশালী ব্যক্তির নিজের নিজের প্রতিভার এক নিজস্ব আর্ট রয়েছে। এমন একটি বিশেষ ব্যক্তিত্বর অধিকারী হলেন অভিনেতা আদিল হুসেইন । ইনি শুধুমাত্র জলিউড জগতেই নয় বাংলা চলচ্চিত্র থেকে শুরু করে বলিউড এবং হলিউড জগতেও নিজের সুন্দর প্রতিভার দ্বারা আমাদের দেশে সন্মান নিয়ে এসেছেন ।

 

১৯৬৩ সালের ৫ই অক্টোবরে গোয়ালপারাই জন্মগ্রহণ করেছিলেন আদিল হুসেইনের মত প্রতিভাশালী অভিনেতা। ইনার পিতৃর বৃত্তি ছিলেন শিক্ষকতা ।
শৈশব থেকেই ইনি নাটক করে অভিনয় জগতে নিজের যোগ্য স্থানের জন্যে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিলেন ।

মহাবিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত সময়কালীন তিনি ব্যংগাত্মক নাটকের সংগে আসামের বিখ্যাত কৌতুকগোষ্ঠী “ভায়মামা”ত বলিউড অভিনেতাদের ব্যংগাত্মক চরিত্রে অভিনয় করে দর্শকদের সন্মুখে প্রশংসিত হন।
১৯৯৯ সালে “অথেলঃ এ প্লে ইন ব্লেক এণ্ড হোয়াইট” নাটকের জন্যে “এডিনবার্গ ফ্রিন্জ” পুরস্কার লাভ করেন । তিনি দূরদর্শনে “বিবিচি ওয়ার্ল্ড চার্ভিস ট্রাষ্টে” প্রযোজনা করা “জাচুচ বিজয়” নামে একটি ডিটেক্টিভ ধারাবাহিকে অভিনয় করেন ।

 

২০১৭ সালে আদিল হুসেইনে “মাজ ৰাতি কেতেকী” অসমীয়া চলচ্চিত্ৰের জন্যে “National Film Award “লাভ করেন। আবারো “মুক্তিভবন” চলচ্চিত্ৰের জন্যও “National Film Award” লাভ করেন তিনি। ২০১৮ সালে “মুক্তিভবন” চলচ্চিত্ৰটি ‘IIFA Award”এর শ্রেষ্ঠ অভিনেতা পুরস্কারের জন্যে মনোনীত হন অভিনেতা আদিল হুসেইন। ২০১৮ সালেই ১৯ই আগস্টে “হোয়াট উইল পিপল সে” চলচ্চিত্ৰটিতে নিজের অসাধারণ অভিনয়ের জন্যে স্কেভিয়ান দেশের বিখ্যাত অভিনেতার সন্মান “আমাণ্ডা” পুরস্কারের জন্য আদিল হুসেইনকে মনোনীত করার অপরদিকে নরবের হাউগেসুণ্ডে শ্রেষ্ঠ অভিনেতার সন্মান প্রদানের কথা ঘোষণা করেন। আদিল হুসেইনের মত বিশাল প্রতিভাসম্পন্ন অভিনেতাকে নিয়ে আজ সমগ্র ভারতবর্ষ ও আসাম গৌরবান্বিত।

Facebook Comments